তাজা খবর

মার্কিন জোটকে আর যুদ্ধবিমান দেবে না হল্যান্ড!

ইরাক ও সিরিয়ায় তৎপর আইএসের বিরুদ্ধে প্রথমে বিমান হামলা শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর আরব মিত্রদেশগুলোর সহযোগিতায় সিরিয়ায় আইএসের অবস্থানের ওপর হামলা শুরু করে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোট। পরবর্তী সময়ে ব্রিটেন ও ফ্রান্সও ইরাকে আইএসের অবস্থানের ওপর বিমান হামলা চালানো শুরু করে। এদিকে, ইরাক ও সিরিয়ায় তৎপর জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের বিরুদ্ধে মার্কিন জোটকে যুদ্ধবিমান দিয়ে আর সহযোগিতা করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে হল্যান্ড।ডাচ সরকারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে একটি বিবৃতিতে দেয়া হয়েছে।

প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মার্কিন নেতৃত্বাধীন আইএসের বিরোধী জোটে হল্যান্ডের এফ-১৬ বোমারু বিমান মোতায়েন রাখার মেয়াদ আগামী ৩‌১ ডিসেম্বর শেষ হবে। এরপর আর ওই মেয়াদ বাড়ানো হবে না। অর্থাৎ কোন যুদ্ধবিমান আর দেওয়া হবে না।
বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, চলতি বছর শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডাচ সরকার ইরাক ও সিরিয়া থেকে নিজের চারটি এফ-১৬ বোমারু বিমানও ফিরিয়ে নেবে।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শাসনের সময়ে সিরিয়া ও ইরাকে আইএসের বিরোধী যুদ্ধ চালানোর জন্য সামরিক জোট গঠন করা হয়।হল্যান্ড এতদিন ওই জোটের সদস্য ছিল। কিন্তু এখন থেকে আর তা হচ্ছে না। হলান্ডের এই সিদ্ধান্তে এখন চাপের মুখে আইএসের বিরুদ্ধে লড়া মার্কিন জোট।

উল্লেখ্য, সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বিমান হামলায় এক মাসে ৫৫৩ জঙ্গি ও ৩২ জন বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ‘দ্য সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস’। যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠনটি সম্প্রতি এসব তথ্য জানিয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৪৬৪ জন আইএসের যোদ্ধা বলে জানিয়েছে শুরু থেকে সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ পর্যবেক্ষণ করে আসা সংগঠনটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*